Breaking News

পার্কে চলছে অশালীন কর্মকাণ্ড, নজরদারিতে বসছে সিসিটিভি

সংবাদ সারাদিন,বালুরঘাট: নামেই শিশুদের পার্ক। পার্কের ভেতরে একটু আড়ালে নজর দিলেই নজরে আসবে প্রেমিক যুগলদের নানান কীর্তি। বালুরঘাট শহরের সুরেশ রঞ্জন পার্কের এমন কীর্তি কলাপ রোজনামচা ব্যাপার বলেই অভিযোগ। পৌরসভার দায়িত্বে থাকা এই পার্কটিতে নেই কোন নজরদারি। বিগত কয়েক দিন আগে পার্কে এক প্রেমিক যুগলের অন্তরঙ্গ মুহুর্ত একটি ভিডিও সোশাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়ে যায়। বিষয়টি নজরে আসতেই ব্যবস্থা নেওয়ার আশ্বাস বালুরঘাট পৌরসভার।

বালুরঘাট পৌরসভার ১০০ মিটারের মধ্যেই রয়েছে ছোটোদের মনোরঞ্জনের জন্য সুরেশরঞ্জন পার্ক। পার্কে ঢোকার জন্য রয়েছে টিকিটের ব্যবস্থা। পার্কের এক পাশে রয়েছে সুইমিংপুল। দুপুর থেকেই একরকম খুলে যায় পার্কটি। বিকেল থেকে সন্ধ্যা অবধি বেশী ভিড় হয়। পার্ক দেখাশোনার জন্য রয়েছে বেশ কয়েকজন কর্মী। এদিকে পার্কের পরিবেশ নিয়ে নানান অভিযোগ ওঠে মাঝে মধ্যেই। শিশুদের জন্য পার্ক হলেও পার্কের একাংশ দখল করে থাকে প্রেমিক যুগল। এমনকি একটু আড়ালে প্রেমিক যুগল অন্তরঙ্গ মুহুর্তে জড়িয়ে পরে। দিন কয়েক।আগে এমনই দুই প্রেমিক যুগলের অন্তরঙ্গ মুহুর্ত ভিডিও আকারে সোশাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়। ফেসবুক থেকে হোয়াটস অ্যাপে ঘুরছে ভাইরাল সেই ভিডিওটি। যা ইতিমধ্যে নজরে এসেছে বালুরঘাট পৌর কর্তৃপক্ষেরও। এরপরই নড়েচড়ে বসেছে পৌর কর্তৃপক্ষ। পার্কেও সিসিটিভি বসানোর চিন্তাভাবনা করছে পৌরসভা। এছাড়াও মহিলা পুলিশ কর্মী পার্কে মোতায়ন করার চিন্তা ভাবনা করছে পৌরসভা বলে জানা গেছে। বিষয়টি নিয়ে ক্ষোভ উঠেছে শহর জুড়ে। এমন নোংরামি যাতে পার্কে না হয় তার উপর নজরদারি চালানোর দাবি তুলেছেন বালুরঘাটবাসী।

এবিষয়ে বালুরঘাট পৌরসভার চেয়ারম্যান রাজেন শীল জানান, বিষয়টি তিনিও শুনেছেন। এমনটা হওয়া উচিৎ নয়। শিশুদের পার্ক এটি। পার্কে শিশুদের অগ্রাধিকার সবার প্রথম। এরপর তাদের অভিভাবকরা। তার পর অন্যরা। পার্কে সবাই যেতে পারে। তবে এবার থেকে পার্কে শুধু মাত্র বসার জায়গায় বসতে দেওয়া হবে। নজরদারির জন্য মহিলা পুলিশ কর্মী ব্যবস্থা করা হবে। এছাড়াও পার্কের নিরাপত্তা ও পরিবেশ ঠিক রাখার জন্য চারপাশে লাগানো হবে সিসিটিভি। আড়ালে কেউ বসে এমন নোংরামি করলে তাদের বিরুদ্ধে নেওয়া হবে আইনত ব্যবস্থা বলে রাজেনবাবু জানিয়েছেন।

error: Content is protected !!