Breaking News

প্রেমে বাধা, ঘুমন্ত বাবাকে কুপিয়ে আগুনে পোড়াল কিশোরী মেয়ে

সংবাদ সারাদিন, ওয়েবডেস্ক: একটি ছেলের সঙ্গে মেয়ের প্রেমের সম্পর্ক মেনে নিতে পারেননি। বাধা দিয়েছিলেন। তার জেরে ঘুমন্ত ব্যক্তিকে ছুরি দিয়ে কুপিয়ে খুনের পর আগুনে পোড়াল তাঁর কিশোরী মেয়ে। ১৫ বছরের ওই কিশোরীর এই নারকীয় কাজে সাহায্য করেছে তার প্রেমিকও। পাশবিক এই ঘটনাটি ঘটেছে কর্ণাটকের রাজধানী বেঙ্গালুরুতে। ঘটনাটির কথা জানাজানি হওয়ার পর ওই কিশোরী ও তার ১৮ বছর বয়সী প্রেমিককে আটক করে জেরা করছে পুলিশ।

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, কিশোরী মেয়ের সঙ্গে স্থানীয় এক যুবকের সম্পর্ক মেনে নিতে পারছিলেন না ৪১ বছরের ওই ব্যবসায়ী। বিষয়টি নিয়ে বেশ কয়েকবার পরিবারের মধ্যে অশান্তিও হয়েছিল। রবিবার মেয়েটির মা ও ভাই পুদুচেরিতে বিয়ে বাড়ি যাবেন বলে বেরিয়ে ছিলেন। তাঁদের স্টেশনে পৌঁছে দিয়ে আসেন মেয়েটির বাবা। সেখান থেকে বাড়ি ফেরার পর তাঁকে এক গ্লাস দুধ খেতে দেয় ওই কিশোরী। প্রেমিকের সঙ্গে পরামর্শ করে তাতে আগে থেকে ঘুমের ওষুধ মিশিয়ে রেখেছিল সে। এর জেরে কিছুক্ষণ বাদেই ঘুমিয়ে পড়েন ওই ব্যক্তি। আর সেই সুযোগে তাঁকে ছুরি দিয়ে কুপিয়ে খুন করে ওই কিশোরী ও তার প্রেমিক। তারপর বাথরুমে দেহটি টেনে নিয়ে গিয়ে কেরোসিন দিয়ে আগুন ধরিয়ে দেয়।

এদিকে প্রতিবেশীরা ওই বাড়ির বাথরুম থেকে ধোঁয়া বের হতে দেখে পুলিশ ও দমকলকে খবর দেন। সঙ্গে সঙ্গে ঘটনাস্থলে এসে দমকল ও পুলিশকর্মীরা দেখেন বাথরুমের মধ্যে পুড়ছে এক ব্যক্তির দেহ। আর জ্বলন্ত ওই শরীরে রয়েছে ১০ থেকে ১২টি ক্ষত। বিষয়টি সম্পর্কে ওই কিশোরী ও তার প্রেমিককে জেরা করতে শুরু করে পুলিশ। কিছুক্ষণ বাদে পুলিশের জেরায় ভেঙে পড়ে সমস্ত ঘটনার কথা স্বীকার করে নেয় তারা।

এপ্রসঙ্গে বেঙ্গালুরুর সহকারী কমিশনার ভি ধনঞ্জয় কুমার জানান, জেরায় মেয়েটি জানিয়েছে তার সম্পর্ক মেনে নেয়নি বাবা। তাই মাঝে মাঝে পরিবারের মধ্যে এই বিষয় নিয়ে অশান্তি হত। কিছুদিন আগে সে ও তার প্রেমিক স্থানীয় একটি শপিংমল ঘুরতে গিয়েছিল। সেসময় তার বাবা তাদের দেখতে পেয়ে বকাবকি করেন। এরপরই প্রেমিকের সঙ্গে ষড়যন্ত্র করে বাবাকে খুনের ছক কষে কিশোরীটি। (তথ্য সৌজন্যে: প্রতিদিন)

error: Content is protected !!