Breaking News

শেষ ভরসায় আশা আরও ক্ষীণ, নাসার অরবিটারের ক্যামেরাতেও ধরা দিল না ল্যান্ডার বিক্রম

সংবাদ সারাদিন, ওয়েবডেস্ক: এই বুঝি ল্যান্ডার বিক্রমের পূর্ণাঙ্গ ছবি প্রকাশ্যে আসবে। বোঝা যাবে চাঁদের পিঠে তার নির্দিষ্ট অবস্থান। এই অপেক্ষাতেই প্রহর গুনছিল ইসরো। কিন্তু নাহ্, বিক্রমকে নিয়ে কোনও আশার কথা শোনাতে পারল না নাসা। তাদের চন্দ্রযানের অরবিটারে ধরা দিল না বিক্রম। মার্কিন মহাকাশ গবেষণা সংস্থার তরফে জানানো হয়েছে, অরবিটারের ক্যামেরার নাগালের মধ্যে পড়ল না বিক্রম। তাই তার ছবি তোলা সম্ভব হয়নি। আর নাসার এই প্রয়াস ব্যর্থ হওয়ায় বিক্রমকে উদ্ধারের সমস্ত আশাই কার্যত শেষ হয়ে গেল ইসরোর।

গত ৭ সেপ্টেম্বর ল্যান্ডার বিক্রমের সফল ল্যান্ডিংয়ের সময় তার সঙ্গে যোগাযোগ ছিন্ন হয় ইসরোর। তারপর থেকেই ল্যান্ডার বিক্রমের সঙ্গে যোগাযোগ স্থাপনের সবরকম চেষ্টা চালানো হচ্ছে। চাঁদের মাটিতে ল্যান্ডার বিক্রমের থার্মাল ইমেজ পাওয়া পেলেও আলোকচিত্র হাতে পায়নি ইসরো। ফলে তার অবস্থান আন্দাজ করা গেলেও, সে কী অবস্থায় আছে তা পুরোপুরি আন্দাজ করা যাচ্ছে না। এরই মধ্যে ইসরোর সাহায্যে এগিয়ে আসে নাসা। ভারতে এসে ইসরোর বিজ্ঞানীদের সঙ্গে আলোচনা করে যান নাসার বিজ্ঞানীরা। তারপরই নিজেদের অরবিটারকে ইসরোর সাহায্যে এগিয়ে দেয় নাসা। বলা হয়, তাদের লুনার রিকনসাঁ অরবিটারের মাধ্যমে চন্দ্রযানের ল্যান্ডারের ইমেজেরি তৈরির চেষ্টা করা হবে। নাসার লুনার রিকনসাঁ অরবিটার এই মুহূর্তে চাঁদকে প্রদক্ষিণ করছে।

ল্যান্ডার বিক্রম যে স্থানে ল্যান্ড করেছিল বলে ধারণা করা হয়েছে, মঙ্গলবার নাসার অরবিটারটি সেই অবস্থানের উপর নিয়ে যায়। তারপর সেই এলাকায় ঘুরপাক খেতে থাকে লুনার রিকনসাঁ অরবিটার ক্যামেরা। কিন্তু বিক্রম কোনওভাবেই ক্যামেরায় ধরা দেয়নি। ল্যান্ডারের সঠিক লোকেশন স্পষ্ট না হওয়াতেই তার দেখা পাওয়া সম্ভব হল না বলে জানিয়েছেন নাসা। মার্কিন মহাকাশ গবেষণা সংস্থার দাবি, তাদের অরবিটারে রয়েছে উচ্চ ক্ষমতাসম্পন্ন ক্যামেরা। যা বিক্রমের পূর্ণাবয়ব ছবি তোলার ক্ষমতা রাখে। যদি, বিক্রমের কোনওরকম ছবি তোলা সম্ভব হয়, তাহলে তা ইসরোর গবেষকদের পাঠিয়ে দেওয়া হবে। নাসার ওয়েবসাইটের মাধ্যমে একথা জানানো হয়েছিল। কিন্তু মঙ্গলবারের প্রয়াসের পরও তেমনটা সম্ভব হল না।

মঙ্গলবার যে ছবি তোলা হয়েছে, তার সঙ্গে আগে তোলা ছবি মিলিয়ে দেখা হবে, কোনওভাবে ল্যান্ডারকে চিহ্নিত করা যাচ্ছে কি না। বিষয়টি বিশ্লেষণের পরই ফলাফল সর্বসমক্ষে প্রকাশিত হবে। এরপর আবার ১৪ অক্টোবর ল্যান্ডিংয়ের জায়গার উপর দিয়ে যাবে নাসার অরবিটার। কারণ ২১ সেপ্টেম্বর থেকেই শুরু হবে চন্দ্র রাত। অর্থাৎ এই সময়টা চাঁদের পিঠে আলোর পরিমাণ ক্ষীণ হয়ে পড়বে বলে ল্যান্ডারকে খুঁজে বের করা প্রায় অসম্ভব বলেই জানাচ্ছেন বিশেষজ্ঞরা। (তথ্য সৌজন্যে: প্রতিদিন)

error: Content is protected !!