Breaking News

হাসপাতালের পাঁচতলা থেকে পালানোর চেষ্টা রোগীর, চাঞ্চল্য ঝাড়গ্রামে

সংবাদ সারাদিন, ঝাড়গ্রাম: ওটি থেকে পালিয়ে হাসপাতালের পাঁচতলা বিল্ডিং থেকে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে পাইপলাইনে ঝুলে নীচে নামার চেষ্টা করল রোগী। নিচে নামতে গিয়ে ঝুলে থাকা রোগীকে দড়ি বেঁধে নিচে নামাল দমকল বাহিনী। এমনই ঘটনা ঘটল সোমবার ঝাড়গ্রাম সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালে।

হাসপাতাল সূত্রে জানা গিয়েছে, ওই রোগীর নাম সুদর্শন দণ্ডপাট। তার ডান হাতে ফ্রেকচার থাকার জন্য হাসপাতালে ভরতি ছিল সে। এদিন তার ডান হাতে প্লাস্টার করার জন্য সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালের পাঁচ তলায় রয়েছে ওটি সেখানে নিয়ে যাওয়া হয়।

কখন ফাঁক বুঝে ওটি থেকে বেরিয়ে হাসপাতালে ছাদে উঠে যায়। সেখান থেকেই নীচে নামার জন্য হাসপাতালের পাইপলাইনের গার্ড দেওয়া কাঠের পাটা ধরে নীচে নামার চেষ্টা করে সে। হাসপাতালে নিরাপত্তারক্ষীদের চোখে পড়ায় তড়িঘড়ি গিয়ে তাকে আটকানো সম্ভব হলেও সে অনেকটা নীচে নেমে যায়। তারপরে ঘটনাস্থলে দমকল বিভাগের কর্মীরা এসে তাকে দড়ি দিয়ে বেঁধে নীচে নামায়। কেন বা কী কারণে ওই রোগী এই ঘটনা ঘটালে তা স্পষ্টভাবে জানা যায়নি। 

সুদর্শন দণ্ডপাটের বাড়ি জামবনি ব্লকের চিল্কিগড় এলাকায়। কোনও কারণবশত ডানহাতে ফ্রেকচার হওয়ায় সুদর্শন ভরতি হয় ঝাড়গ্রাম সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালে।

এদিন তার ডানহাত প্লাস্টারের জন্য ওটিতে নিয়ে গেলে সেখান থেকেই ফাঁক বুঝে পালিয়ে যায় সে। এই ঘটনার পরে ঝাড়গ্রাম সুপার হাসপাতাল নিরাপত্তারক্ষীদের কড়াকড়ি ভাবে নিরাপত্তা দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয় বলে জানা গিয়েছে।