Breaking News

পুলিশকর্মীর হাতে প্রহৃত ব্যবসায়ী, প্রতিবাদে থানা ঘেরাও ও পথ অবরোধ কুশমণ্ডিতে

সংবাদ সারাদিন, কুশমণ্ডি: নাকা চেকিং চলাকালীন বাড়ি ফিরছিলেন এক ব্যক্তি। সেই সময় নাকা চেকিং-এ উপস্থিত এক পুলিশকর্মী তাকে দাঁড়াতে বললে তিনি একটু দূরে দাঁড়ান। আর তাই তাকে মারধর করার অভিযোগ উঠল পুলিশ কর্মীর বিরুদ্ধে।

ঘটনাটি ঘটেছে দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার কুশমণ্ডি থানার অন্তর্গত কুশমণ্ডি উষাহরণ রোডের দলদলিয়া এলাকায়।

জানা গিয়েছে, সোমবার দুপুরে ওই এলাকায় নাকা চেকিং করার সময় সেখান দিয়েই নিজের বাড়ি ফিরছিলেন মোল্লাপাড়া এলাকার বছর ৪৫-এর এক ব্যবসায়ী মফিজুর রহমান।

সেই সময় দলদলিয়া এলাকায় নাকা চেকিং-এ দায়িত্বে থাকা পুলিশ কর্মী ওই ব্যবসায়ীকে দাঁড়াতে বললে তিনি একটু দূরেই দাঁড়ান। আর তাই সেখানে উপস্থিত পুলিশকর্মী তাকে মারধর করে বলে অভিযোগ।

এরপর ঘণ্টা খানেক বাদে ওই ব‍্যক্তি বাড়ি ফিরলে ও বিষয়টি জানাজানি হতেই ক্ষোভে ফেটে পড়েন ব্যবসায়ীরা। এরপরই গ্ৰামবাসীরা সরব হয়ে কুশমণ্ডি থানা ঘিরে বিক্ষোভ দেখায় ও পুলিশ কর্মীর বদলির আর্জি জানান।

পাশাপাশি কুশমণ্ডি-বুনিয়াদপুর রাজ‍্য সড়ক পথ অবরোধ করে তিন ঘণ্টা ধরে চলতে থাকে বিক্ষোভ। এরপর কুশমণ্ডি থানার আইসি স্থানীয় গ্ৰামবাসীদের সহযোগিতায় পথ অবরোধ উঠে যায়।

পরে ওই পুলিশকর্মী নিজের ভুল স্বীকার করে নেন গ্ৰামবাসীদের সামনে। এক গ্ৰামবাসী সফিউর ইসলাম জানান, “সাধারণ মানুষকে অকারণে পুলিশ কেন মারধর করবে, আমরা তার বদলি চাই।”

এই প্রসঙ্গে তারিকুল ইসলাম জানান, কুশমণ্ডি থানার দায়িত্বে থাকা পুলিশকর্মী বছর ৪৫-এর ব্যবসায়ী মফিজুর রহমানকে মারধর করেছে। আর তাই গ্রামবাসীরা থানা ঘেরাও ও পথ অবরোধ করে বিক্ষোভে সামিল হন। প্রশাসনিক কর্তারা উপস্থিত হয়ে পরিস্থিতি সামাল দেন।

কুশমণ্ডি থানার আইসি মানবেন্দ্রনাথ সাহা বলেন, পুরো বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে।