Breaking News

বালুরঘাটে লালারসের নমুনা সংগ্রহ অর্পিতা ঘোষ সহ দলের একাধিক নেতৃত্ব ও সাংবাদিকদের

সংবাদ সারাদিন, বালুরঘাট: দলীয় নেতা করোনা আক্রান্ত। এর জেরে মঙ্গলবার বিকেলে বালুরঘাট জেলা প্রশাসনিক ভবন সংলগ্ন বালুছায়া ভবনে সোয়াব টেস্টের জন্য লালারস সংগ্রহ করা হল তৃণমূলের জেলা সভানেত্রী তথা রাজ্যসভার সাংসদ অর্পিতা ঘোষের। এদিন জেলা স্বাস্থ্য দফতরের পক্ষ থেকে অর্পিতা ঘোষ ছাড়াও সোয়াব টেস্টের জন্য লালারস সংগ্রহ করা হয় মন্ত্রী বাচ্চু হাঁসদা, গঙ্গারামপুরের বিধায়ক তথা তৃণমূলের জেলা কার্যকরী সভাপতি গৌতম দাস, তৃণমূল নেতা দেবাশিস মজুমদার ও সুভাষ চাকীর।

তৃণমূল নেতৃত্বদের পাশাপাশি এদিন সাংবাদিকদেরও সোয়াব টেস্টের জন্য লালরস সংগ্রহ করা হয়।

প্রসঙ্গত, যুব তৃণমূল নেতার করোনা পজিটিভের খবর আসে গত ২৭ জুন। এদিকে ওই যুব তৃণমূল নেতা গত ২৫ শে জুন বুনিয়াদপুরের একটি দলীয় কর্মসূচিতে হাজির ছিলেন। সেই কর্মসূচিতে তৃণমূলের জেলা সভানেত্রী অর্পিতা ঘোষ সহ জেলার একাংশ নেতৃত্বও ছিলেন।

এদিকে যুব তৃণমূল নেতার করোনা পজিটিভ খবর আসার পরই ওই দিনের দলীয় কর্মসূচিতে হাজির থাকা তৃণমূল নেতাকর্মীদের হোম আইসোলেশনলনে থাকার নির্দেশ দিয়েছিলেন তৃণমূলের জেলা সভাপতি অর্পিতা ঘোষ। আজ জেলার শীর্ষ নেতাদের সোয়াব টেস্টের জন্য আজ লালারস সংগ্রহ করা হয়। ওই দিনের অনুষ্ঠানে থাকা বাকিদের সোয়াব টেস্ট হবে আগামী ২ জুলাই বলে অর্পিতা ঘোষ জানিয়েছেন।

এবিষয়ে তৃণমূলের সভানেত্রী অর্পিতা ঘোষ জানান, আজ তিনি সহ সুভাষ চাকি, দেবাশিস মজুমদার, গৌতম দাস, বাচ্চু হাঁসদা ও তোরাফ হোসেন মণ্ডলের সোয়াব টেস্ট হয়। শঙ্কর চক্রবর্তীর ফেস শিল্ড থাকায় এবং সুরক্ষিত থাকায় ওনার প্রয়োজন নেই। ওই দিনের কর্মসূচিতে থাকা বাকিদের পুল টেস্ট হবে আগামী ২ জুলাই।

তাদের পাশাপাশি আজ বেশ কিছু সাংবাদিকেরও সোয়াব টেস্ট হয়। সাংবাদিকরা অনেক বেশি জায়গায় ছুটে যান। তাই তাদের সুরক্ষার কথা মাথায় রেখে এই সিদ্ধান্ত।