Breaking News

ইটাহারে ধর্ম গুরুর পূজার মাধ্যমে দুর্গাপূজার শুরু আদিবাসী সম্প্রদায়ে

সংবাদ সারাদিন, ইটাহার: আদিবাসী সম্প্রদায়ের ধর্ম গুরুর পূজা দিয়ে দুর্গাপূজা শুরুর প্রস্তুতি তুঙ্গে ইটাহারে। শুক্রবার ইটাহার ব্লকের জয়হাট অঞ্চলের প্রত্যন্ত আদিবাসী অধ্যুষিত চাঁকলা গ্রামে আদিবাসী সম্প্রদায়ের দুর্গাপূজার প্রস্তুতি সহ ধর্মীর গুরুর মন্দির সংস্কারের কাজ জোর কদমে কাজ চলতে দেখা গেল।

উল্লেখ্য ইটাহার ব্লকের জয়হাট অঞ্চলের আদিবাসী অধ্যুষিত চাঁকলা গ্রামে চাঁকলা সর্বজনীন দুর্গাপূজা এবারে ৩৯ তম বর্ষে পদার্পণ করল। তবে দুর্গাপূজার প্রস্তুতির পাশাপাশি মন্দির সংলগ্ন আদিবাসী সম্প্রদায়ের ধর্মী গুরু মাঝি বাবার মন্দির সংস্কারের কাজ শুরু করেছে আদিবাসী সম্প্রদায়ের মহিলারা।

এই বিষয়ে এলাকার এক মহিলা তালু কিস্কু বলেন, সামনে দুর্গাপূজা ফলে মন্দিরের পাশে ধর্মীয় গুরু মাঝি বাবার বেদী পরিস্কার করা হচ্ছে। কারণ দুর্গা পূজার দিন আগে মাঝি বাবার থানে পূজা দিয়ে তারপর দুর্গাপূজা শুরু হয়। এটাই নিয়ম আমাদের চাঁকলা গ্রামের আদিবাসী সম্প্রদায়ের দূর্গাপুজায়।

অন্য দিকে পূজা কমিটির সদস্য মাঝি বাস্কে বলেন, আমাদের চাঁকলা আদিবাসী সর্বজনীন দুর্গাপূজা এবারে করোনা আবহে সরকারি নির্দেশিকা মেনে পূজার আয়োজন করা হচ্ছে। সেরকম লাইট পেন্ডেল আলোক সজ্জা না হলেও মন্দির প্রাঙ্গণে নিয়ম নিষ্ঠার সঙ্গে পূজার আয়োজন করা হয়ে থাকে। কোনওরকম চাঁদা না তোলা হলেও নিজেদের অর্থ ও দশের এক পুকুর থেকে মাছ তুলে তা বিক্রি করে কিছু অর্থ দিয়ে পূজার আয়োজন করা হয় প্রতিবার।

গতবার ২৫ হাজার দিলেও এবারে সরকারি ভাবে দিদি ৫০ হাজার টাকা দিয়েছে সকল পূজা কমিটির সঙ্গে আমাদের আদিবাসী সম্প্রদায়ের দুর্গাপূজার জন্য। বর্তমানে মাঝি বাবার বেদী পরিস্কার করা হচ্ছে। কারণ আগে মাঝি বাবার বেদীতে পূজা দিয়ে তারপর শুরু দুর্গাপূজা। কেননা গ্রামে যাতে কোন রকম অসুখ বিসুখ না হয় সেকারনে ধর্মীয় গুরু মাঝি বাবার বেদীতে পূজা দিয়ে প্রার্থণা করি যাতে গ্রামে যাতে কোন বিপদ না ঢোকে। এটা আমাদের আদিবাসী সম্প্রদায়ের নিয়ম। সবকিছু ঠিক রেখে সরকারি নির্দেশ মেনে পূজার আয়োজন করা হচ্ছে।