Breaking News

বিজয়া দশমীতে মানিকচকে গৃহবধূর ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার, খুনের দায়ে অভিযুক্ত স্বামী

সংবাদ সারাদিন, মানিকচক : পারিবারিক অশান্তির জেরে গৃহবধূর অস্বাভাবিক মৃত্যু ঘিরে জোর চাঞ্চল্য এলাকায়। বাড়ি থেকে গৃহবধূর ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার করে পুলিশ। ঘটনাটি ঘটেছে মালদার মানিকচক থানার নাজিরপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের খয়েরতলা এলাকায়। যদিও পরিবারের দাবি আত্মহত্যা নয়, স্বামী শ্বাসরোধ করে খুন করেছে গৃহবধূকে। সমগ্র ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে মানিকচক থানার পুলিশ।

পুলিশ জানিয়েছে, মৃত বধূর নাম আদুরী মহালদার(২০)। স্বামীর নাম সমীর মণ্ডল। পেশায় লেবার। সোমবার বাড়ি থেকে গৃহবধূর দেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

পরিবার সূত্রে জানা গিয়েছে, প্রায় বছর খানেক আগে বিহারের আমদাবাদ থানার দিল্লি দেবনগঞ্জ এলাকার মেয়ের বিয়ে হয় হরতালে এলাকার বাসিন্দা সমীর মহালদারের সঙ্গে। বিয়ের প্রথম কয়েকটা মাস সবকিছু ঠিকঠাক চলছিল। তবে সম্প্রতি স্বামীর চাওয়া-পাওয়া বাড়তে থাকে।

মৃতার বাপের বাড়ির অভিযোগ, স্বামী মদ ও জুয়ার নেশায় আসক্ত হয়ে পড়েছিল। এই নিয়ে বেশ কয়েকবার দুই পরিবার বসে সমাধান করা হয়। কিন্তু তারপরও মদ-জুয়ার নেশা চালিয়ে যাচ্ছিল। দুর্গা পূজা চলাকালীন জুয়াতে বেশ কিছু টাকাও হেরে যায় স্বামী। আর এই সমস্ত ঘটনা নিয়ে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে অশান্তি চলছিল। শেষমেষ বিজয়া দশমীর দিন স্ত্রীর ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার হয় বাড়ি থেকে। অভিযোগ, স্বামী শ্বাসরোধ করে খুন করেছে স্ত্রীকে।

এদিন মানিকচক থানা দেহের ম্যাজিস্ট্রেট পর্যায়ে তদন্ত করতে পৌঁছায় মানিকচক ব্লক বিডিও জয় আমেদ। দেহের বিভিন্ন অংশ খতিয়ে দেখেন প্রশাসনের কর্তারা। এদিকে মানিকচক থানার পুলিশ জানিয়েছে, দেহ ময়নাতদন্তের জন্য মালদা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। ময়নাতদন্তের রিপোর্ট এরপরই পরিষ্কার হবে মৃত্যুর কারণ। সমগ্র ঘটনার তদন্ত প্রক্রিয়া চালানো হচ্ছে এবং অভিযুক্ত স্বামীর খোঁজ চলছে।