Breaking News

১২ঘণ্টার কালিয়াগঞ্জ বন্‌ধের সমর্থনে রাস্তায় নেমে গ্রেফতার বিজেপি নেতাকর্মীরা

সংবাদ সারাদিন, কালিয়াগঞ্জ: কালিয়াগঞ্জ থানার নসিরহাট এলাকায় জয়ন্তী দাস নামে এক গৃহবধূর অস্বাভাবিক মৃত্যুর ঘটনায় উঠে আসে গণধর্ষণ ও খুনের অভিযোগ। এই ঘটনার প্রতিবাদে দুষ্কৃতীদের গ্রেফতারের দাবিতে মঙ্গলবার কালিয়াগঞ্জ ব্লকে ১২ঘণ্টা বন্‌ধের ডাক দেয় বিজেপি। বিজেপির ডাকা এই বন্‌ধকে ঘিরে ব্যাপক উত্তেজনা দেখা দেয় কালিয়াগঞ্জ শহরে। বন্‌ধের সমর্থনে মিছিল ও জোর করে বন্‌ধ পালন করানোর জন্য বেশ কয়েকজন বিজেপি নেতা-কর্মী-সমর্থককে গ্রেফতার করে কালিয়াগঞ্জ থানার পুলিশ। পুলিশের সঙ্গে বিজেপির বন্‌ধ সমর্থকদের মধ্যে ধস্তাধস্তিও হয়। বন্‌ধে দোকানপাট বন্ধ থাকলেও রায়গঞ্জ-বালুরঘাট রাজ্য সড়কে যান চলাচল করে। শহর জুড়ে ব্যপক পুলিশি টহলদারি ও জনজীবন স্বাভাবিক রাখার ব্যবস্থা করা হয়।

গত ৪ নভেম্বর রাতে কালিয়াগঞ্জ থানার নসিরহাট এলাকায় জয়ন্তী দাস নামে এক গৃহবধূর অস্বাভাবিক মৃত্যু ঘটে। মৃতার আত্মীয়ের অভিযোগ, স্বামী বাড়িতে মদের আসর বসিয়ে তাকে গণধর্ষণ করিয়ে হত্যা করে ঝুলিয়ে দিয়েছে। এই অভিযোগে মৃতার পরিবারের লোকেরা স্বামী উজ্জ্বল সরকার এবং শাশুড়ি হিমা সরকারকে মারধর করে। এছাড়া তাদের বাড়ি ভাঙচুর চালায় বলে অভিযোগ। অভিযুক্তদের গ্রেফতারের দাবিতে বিজেপি সমর্থক বালুরঘাট-রায়গঞ্জ রাস্তা অবরোধ করেছিল। পুলিশ গিয়ে গ্রেফতারের আশ্বাস দিয়ে অবরোধ তুলে দেয়। পুলিশ এই ঘটনায় মৃতার স্বামী এবং শাশুড়ি ও স্বামীকে গ্রেফতার করেছিল। কিন্তু পুলিশ হেফাজতে থাকা অভিযুক্ত ওই দু’জন পালিয়ে যায় বলে অভিযোগ তোলে বিজেপি।

এরপর পুলিশি নিষ্ক্রিয়তার অভিযোগ তুলে কালিয়াগঞ্জের বিবেকানন্দ মোড়ে গত চারদিনের ধর্না ও অবস্থান বিক্ষোভ করে বিজেপি। কেন্দ্রীয় মন্ত্রী দেবশ্রী চোধুরী মৃতার পরিবারকে সমবেদনা জানাতেও গিয়েছিলেন। আজ মঙ্গলবার দুষ্কৃতীদের গ্রেফতারের দাবিতে কালিয়াগঞ্জ ব্লক ১২ ঘণ্টার বন্‌ধের ডাক দিয়েছে বিজেপি। বনধে জনজীবন প্রায় স্বাভাবিক রয়েছে।