Breaking News

বালুরঘাটে চাকরি পেয়ে ভোল বদল স্ত্রীর, ধর্নায় দিনমজুর স্বামী

সংবাদ সারাদিন, বালুরঘাট : স্ত্রী’র সঙ্গে সংসার করতে চেয়ে স্ত্রী’র বাড়ির সামনে ধর্নায় বসল স্বামী। শুধুমাত্র ধর্না নয় বিয়ের এবং প্রেমের একাধিক প্রমাণপত্র ও নথি দেওয়ালে লাগিয়ে ধর্নায় বসে স্বামী। বুধবার রাতে চাঞ্চল্যকর ঘটনাটি ঘটেছে বালুরঘাট ব্লকের অমৃতখন্ড গ্রাম পঞ্চায়েতের জিতাহার এলাকায়। এদিকে খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছায় বালুরঘাট থানার পুলিশ। যদিও পুলিশি হস্তক্ষেপেও স্বাভাবিক হয়নি পরিস্থিতি। ধর্না থেকে যুবককে এক চুলও নড়াতে পারেনি। তার সাফ কথা স্ত্রীকে না পেলে সেখানেই সে আত্মঘাতী হবে। এদিকে সমস্যার সমাধান না হওয়ায় পরে পুলিশি ঘটনাস্থল থেকে চলে যায়। যদিও এবিষয়ে যুবতী বা তার পরিবারের কেউ সংবাদমাধ্যমের সামনে মুখ খুলতে চাননি।

জানা গিয়েছে, স্বামীর নাম অরূপ বর্মণ। বাড়ি বালুরঘাট ব্লকের অমৃতখন্ড(মালঞ্চা) এলাকায়। পেশায় সে রাজমিস্ত্রি। প্রায় চার বছর আগে অরূপের সঙ্গে অমৃতখন্ড গ্রাম পঞ্চায়েতের জিতাহার এলাকার এক যুবতীর বিয়ে হয়। তবে অনুষ্ঠান করে নয় বিয়ে হয়েছিল রেজিস্ট্রি করে। চার বছর আগে তাদের বিয়ে হলেও প্রেম-ভালোবাসা প্রায় ছয় বছরের। এদিকে রেজিস্ট্রি বিয়ের পরপরই ওই যুবতী নার্সিং প্রশিক্ষণের জন্য সুযোগ পায়। যুবতীর বাপের বাড়ির পরিবারের আর্থিক অবস্থা ভাল না ওয়ায় অরূপই তার স্ত্রী’র প্রশিক্ষণের সব রকম খরচ যুগিয়েছিল। চলতি বছর দুর্গা পুজোর আগে আগে ওই যুবতী গঙ্গারামপুর সুপার স্পেশালিটি হাসপাতাল নার্স হিসাবে কাজে যোগ দেয়। এদিকে সরকারি চাকরি পাওয়ার পর থেকেই রং বদলাতে থাকে যুবতীর। গো ধরে বসেন অরূপের সঙ্গে সে আর সংসার করবেন না।

এদিকে স্ত্রী’র সঙ্গে সংসার করতে চায় অরূপ। এর জন্য একাধিকবার শ্বশুরবাড়ি এসে হত্যে দিয়ে পড়েছিল সে। তবে কোনও লাভ হয়নি তাই আজ সন্ধ্যায় স্ত্রীকে ফেরত পেতে তার বাড়ির সামনে ধর্নায় বসে অরূপ। এদিকে অরূপের এই আন্দোলনে পাশে রয়েছেন প্রতিবেশীরাও।