Breaking News

বালুরঘাট শহরে মধুচক্রের আসর, ৩জনকে হাতেনাতে ধরে পুলিশে দিল এলাকাবাসী

সংবাদ সারাদিন, বালুরঘাট : বালুরঘাট শহরের চৌরঙ্গী ক্লাব সংলগ্ন এলাকায় দীর্ঘদিন ধরে চলছিল বাড়িতে মধুচক্রের আসর। অবশেষে পাড়ার মহিলারাই ধরে ফেললেন হাতেনাতে। দু’জন মহিলা সহ মোট তিনজনকে পুলিশের হাতে তুলে দিল এলাকার মহিলারা। ধৃতদের মধ্যে একজন যুবক রয়েছে। বাড়ি থেকে উদ্ধার হয়েছে বোতল ভর্তি মদ সহ নেশার অন্যান্য সামগ্রী। এদিকে ঘটনাস্থল থেকে এক যুবতীকে উদ্ধার করেছে পুলিশ৷ যাকে চাকরির প্রতিশ্রুতি দিয়ে নিয়ে আসা হয়েছিল বলে অভিযোগ৷ ওই যুবতীকে তার পরিবারের হাতে তুলে দিতে তার পরিবারকে খবর দিয়েছে। পুরো ঘটনা খতিয়ে দেখছে বালুরঘাট থানার পুলিশ।

প্রসঙ্গত, কয়েক মাস আগে ওই বাড়ির মালিক পার্থবাবু বাড়িটি ভাড়া দেন। ভাড়াটিয়া কয়েক মাস ধরে বসবাস করছে। এদিকে ওই নতুন ভাড়াটিয়া কোথা থেকে এসেছে তাদের নাম-পরিচয় কি তা জানত না প্রতিবেশীরা। কিন্তু বিগত বেশ কিছুদিন ধরেই ওই বাড়িতে বাইরে থেকে যুবক-যুবতী আনাগোনা করত। তা দেখতে পেত স্থানীয়রা। দীর্ঘদিন ধরেই এই নিয়ে সন্দেহ ছিল তাদের মনে। অবশেষে আজ এক যুবতী ওই বাড়ি থেকে কান্নাকাটি করে বেরতে দেখেই তাকে জিজ্ঞাসা করলে পুরো বিষয়টি জানতে পারেন স্থানীয়রা। এরপর প্রতিবেশী মহিলারা ভাড়াটিয়া এবং এই কাজের সঙ্গে যুক্ত মাস্টারমাইন্ড এক মহিলার উপর চড়াও হয়। তাকে মারধ করে পুলিশের হাতে তুলে দেয়। ভাড়াটিয়া ও তার ছেলেকেও পুলিশ হাতে তুলে দেয় স্থানীয়রা। জানা গেছে, বালুরঘাট ব্লকের মোটরা এলাকার এক মহিলা দীর্ঘদিন ধরে এইকাজ করছিল ওই বাড়িতে এসে। আজও কুমারগঞ্জের এক যুবতীকে চাকরির প্রলোভন দেখিয়ে সেখানে নিয়ে এসেছিল সেখানে।

এবিষয়ে স্থানীয় এক এলাকাবাসী মামপি মন্ডল বলেন, ওই বাড়িতে মাঝেমধ্যেই অনেক লোকজন আসে। আজকে নাকি সেখানে অবৈধ কাজকর্ম চলছিল। সেই সময় এলাকাবাসীরা হাতেনাতে ধরে ফেলে। শপিং মলে কাজ দেওয়ার নাম করে এক যুবতীকেও ডেকে নিয়ে এসেছিল। সেই কারণে এলাকাবাসীরা তাদের ধরে পুলিশের হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে। আগামীতে এই ধরনের অসামাজিক কার্যকলাপ যাতে না হয় সে বিষয়ে সচেতন হওয়া উচিত।

অন্যদিকে বালুরঘাট থানার পুলিশের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, পুরো ঘটনা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। এই ঘটনার পেছনে আর কে কে আছে তাও দেখা হচ্ছে।