Breaking News

অভিনব উদ্যোগ, ভোটারদের সচেতন করতে গম্ভীরা গানের মাধ্যমে প্রচার চালাচ্ছে মালদার নির্বাচনী আধিকারিকরা

সংবাদ সারাদিন, পরিতোষ সরকার, মালদা: ভোটারদের সচেতন করতে অভিনব উদ্যোগ গ্রহণ করল মালদা জেলা নির্বাচন কমিশন। প্রত্যন্ত এলাকার মানুষ নিজেদের ভোট দানের গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়া যাতে সঠিকভাবে প্রয়োগ করতে পারে তাই শুরু হয়েছে সচেতনতা মূলক প্রচার জেলা নির্বাচনী আধিকারিকের নির্দেশ মতো। মালদার ঐতিহ্য গম্ভীরা গানকে হাতিয়ার করেই গ্রাম্য এলাকার মানুষের মধ্যে পৌঁছে সচেতনতা প্রচার চালাচ্ছে নির্বাচনী আধিকারিকরা। ভোটদানের সমগ্র দিক সাধারণ মানুষের মধ্যে তুলে ধরছেন গম্ভীরা শিল্পীরা। ইতিমধ্যেই জেলার মানিকচক ব্লক এলাকাজুড়ে এই প্রচার অভিযানে নেমেছে নির্বাচন কমিশনের কর্মীরা।

একুশের এই বিধানসভা নির্বাচন। সপ্তম ও অষ্টম দফায় ভোট রয়েছে মালদা জেলায়। তার আগে সাধারণ মানুষকে ভোট সম্পর্কে সচেতন করতে নেমে পড়েছে নির্বাচন কমিশন। বিভিন্ন প্রত্যন্ত এলাকায় পৌঁছে গম্ভীরা শিল্পীরা ভোট প্রক্রিয়ার বিভিন্ন দিককে সামনে রেখে চালাচ্ছে লোকশিল্পের মধ্য দিয়ে মানুষকে ভোটদানের আগ্রহী করতে। বিভিন্ন সাজে সেজে গম্ভীরা শিল্পীরা পরিবেশন করছেন ভোটদানে আগ্রহী করার বিভিন্ন বার্তা। সকল মানুষকে নির্দিষ্ট ভোটের দিন বুথে পৌঁছে নিজেদের গণতান্ত্রিক অধিকার প্রয়োগ করেন সেইদিক বোঝাচ্ছেন তারা। সঙ্গে থাকছে ইভিএম, ভিভিপ্যাড সহ ভোটদানের বিভিন্ন যন্ত্রাংশ। নতুন ভোটার থেকে প্রবীণ ভোটার ইভিএম মেশিনের মাধ্যমে ভোটদান ও ভিভিপ্যাডে তার পছন্দের প্রার্থীকে দেওয়া ভোট দেখে নেওয়া। এই সমগ্র দিক সাধারণ মানুষকে বোঝাচ্ছেন মানিকচক ব্লক নির্বাচনী আধিকারিকরা। মানুষ যাতে ভোট দিতে আগ্রহী হয় সেই লক্ষ্যে এই পদক্ষেপ বলে জানাচ্ছেন নির্বাচনী আধিকারিকরা।

এ প্রসঙ্গে নির্বাচনী প্রক্রিয়ায় যুক্ত কর্মী সৃজিতা ঘোষ জানান, “মানুষ কিভাবে ভোট দেবে সেইদিক মানুষকে বোঝানো হচ্ছে। আর মালদার মানুষের গম্ভীরা একটা আবেগ জড়িয়ে রয়েছে। তাই গম্ভীরা শিল্পীদের নিয়ে মানুষকে রসিকতার মধ্য দিয়ে ভোটদানের আগ্রহ বাড়ানো হচ্ছে। মানুষ বুথে গিয়ে নিজ পছন্দের প্রার্থীকে ভোট দেয়। প্রতি বুথে বেশিসংখ্যক করে মানুষ ভোট দিতে যায়। সেই লক্ষ্যে এ প্রচার চালানো হচ্ছে। করোনা পরিস্থিতিতে বুথগুলিতে সতর্কতার সুব্যবস্থা থাকবে। মানুষের খুব ভাল সারা রয়েছে। জেলা সহ মানিকচক ব্লকের বিভিন্ন প্রান্তে লাগাতার কর্মসূচি চলবে।”

কমিশনের এই উদ্যোগকে সাধুবাদ জানাচ্ছে সাধারণ ভোটাররা। সকল মানুষ এই প্রচারের মধ্যদিয়ে ভোট দিতে আগ্রহী হবে এবং ভুল করে ভোট নষ্ট হবে না বলে জানাচ্ছেন ভোটাররা।