করোনা মোকাবিলায় এই প্রথম অ্যান্টিজেন র‍্যাপিড টেস্টিং প্রক্রিয়া চালু মানিকচকে

সংবাদ সারাদিন, মানিকচক: করোনা মোকাবিলায় এই প্রথম অ্যান্টিজেন র‍্যাপিড টেস্টিং প্রক্রিয়া চালু হল মানিকচকে। খুব দ্রুত কয়েক মিনিটের সময়ে করোনা পরীক্ষার রিপোর্ট হাতে পেতে এই ধরনের উন্নত মানের পদক্ষেপ নিয়েছে মালদা জেলা স্বাস্থ্য দফতর।

উল্লেখ্য, জেলার প্রথম করোনা রোগীর সন্ধান মানিকচক থেকে পাওয়া গিয়েছিল।এরপর ধীরে ধীরে গোটা জেলায় করোনা ভাইরাস ছড়িয়ে পড়ে।করোনা মোকাবিলায় জেলা স্বাস্থ্য দফতর লাগাতার প্রয়াস চালিয়ে যাচ্ছে।

এবার করোনা ভাইরাস মোকাবিলায় অ্যান্টিজেন র‍্যাপিড টেস্টিং- এই নতুন পদ্ধতির মাধ্যমে টেস্ট করলে কয়েক মিনিটের মধ্যে সঙ্গেই সঙ্গে সহজেই রিপোর্ট পাওয়া যাবে।

শুক্রবার মানিকচক গ্রামীণ হাসপাতালের তরফ থেকে মানিকচক কমিউনিটি হলে অ্যান্টিজেন র‍্যাপিড টেস্টিং কিট দিয়ে মানিকচকের প্রায় ৮৫ জনের লালারসের নমুনা সংগ্রহ করা হয়। তাদের রিপোর্ট সঙ্গে সঙ্গে আসে। তাদের মধ্যে ৩ জনের শরীরে এই মারণ ভাইরাস পাওয়া যায়। আগামীতে এই প্রক্রিয়া মানিকচকের গ্রামে চালাবে প্রশাসন।

এই বিষয়ে মানিকচক ব্লক স্বাস্থ্য আধিকারিক ডাঃ হেম ঝাঁ জানান, “আগে আরটিপিসিআর টেস্টের মাধ্যমে করোনা পরীক্ষা করার জন্য লালারসের নমুনা মালদা মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে পাঠাতে হত। এই প্রক্রিয়ায় সময় লাগত বেশি। কিন্তু বর্তমানে অ্যান্টিজেন র‍্যাপিড টেস্টিং কিটের নতুন প্রক্রিয়ার মাধ্যমে খুব সহজে এবং অল্প সময়ে কয়েক মিনিটের মধ্যে করোনা পরীক্ষার রেজাল্ট পাওয়া যাবে।ফলে অল্প সময়ে বেশি টেস্ট করে সহজেই এলাকার করোনা রোগীদের চিহ্নিত করতে পারব।

তবে এই নতুন প্রক্রিয়ার পাশাপাশি আরটিপিসিআর টেস্টের মাধ্যমে করোনা পরীক্ষার কাজও চলবে। পাশাপাশি গ্রামীণ হাসপাতালে যে সমস্ত রোগী আছে এবং যাদের করোনার উপসর্গ দেখা যায় তাদের এই টেস্ট করা হয়েছে। সেই মত আজ ৮৫ জনের টেস্ট করা হয়।৮৫ জনের মধ্যে ৩ জনের রিপোর্ট পজিটিভ হয়। ৩ জন করোনা সংক্রমণ রোগীকে সঙ্গে সঙ্গে মানিকচক মডেল স্কুলের আইসোলেশন সেন্টারে ভরতি করা হয়। আগামীতে মানিকচকের প্রত্যেক গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকায় অ্যান্টিজেন র‍্যাপিড টেস্টিং প্রক্রিয়া চলবে।”

Spread the love