Breaking News

মালদায় গুলিবিদ্ধ বিজেপি কর্মীর বাড়িতে রাজ্য ও জেলা নেতৃত্ব

সংবাদ সারাদিন, মালদা: বিজেপির মণ্ডল সভাপতিকে গুলির ঘটনায় তার বাড়িতে গেলেন বিজেপি নেতৃত্ব। বিজেপি নেতা কে এভাবে খুনের চেষ্টার ঘটনাকে কেন্দ্র করে চাঞ্চল্য রয়েছে জেলা জুড়েই।

গুলিবিদ্ধ ওই বিজেপির মণ্ডল সভাপতির নাম সাদেক আলি। শনিবার রাতে সামসিতে দলীয় কাজ সেরে গাড়িতে করে পুখুরিয়া থানার কুমারগঞ্জে বাড়ির দিকে যাচ্ছিলেন তিনি। সেই সময় তাঁর পথ আটকায় দুষ্কৃতীরা। অভিযোগ, এলোপাথাড়ি গুলি করা হয়। মালদা মেডিক্যালে বর্তমানে ভর্তি রয়েছেন তিনি।

বিজেপির অভিযোগ, এই ঘটনার নেপথ্যে রয়েছে শাসকদল তৃণমূল। হামলাকারীদের অবিলম্বে শাস্তির ব্যবস্থা না করা হলে বৃহত্তর আন্দোলনের হুঁশিয়ারি দিয়েছে গেরুয়া শিবির। যদিও ঘটনার দায় অস্বীকার করেছে তৃণমূল নেতৃত্ব।

আক্রান্ত ব্যক্তি সাদেক আলির পরিবারের সাথে আজ সাক্ষাৎকার করেছেন বিজেপির প্রতিনিধি দল। সেখানে উপস্থিত ছিলেন জেলা সম্পাদক দীপঙ্কর রাম, বিধায়ক জুয়েল মুর্মু, মালদা জেলা সাধারণ সম্পাদক প্রতাপ সিং, রাজ্যের সাধারণ সম্পাদক রথীন্দ্রনাথ বোস সহ অন্যান্যরা।

জেলা সম্পাদক দীপঙ্কর রামের বক্তব্য অনুযায়ী,”সাদেক আলির বাড়ি থেকে আমরা ঘুরে এসেছি। ওনার মা ও স্ত্রীর সাথে আমরা সাক্ষাৎ করেছি। হাসপাতালে সাদেক আলির সাথেও আমরা যোগাযোগ করেছে। আমাদের কর্মী সাদেক আলীর উপর তৃণমূলের হার্মাদ বাহিনী গুলি চালায়। বর্তমানে তিনি মালদা হসপিটালে গুরুতর অবস্থায় ভর্তি রয়েছেন। পুলিশ প্রশাসনের কাছে উপযুক্ত ব্যবস্থার দাবি তুলেছেন তিনি।

অপরদিকে তৃণমূল নেতৃত্ব এই অভিযোগের দায় ঝেড়ে ফেলে বলেছে, বিজেপির মধ্যে অন্তর্দ্বন্দ্ব শুরু হয়েছে। নিজেরাই নিজেদের কর্মীদের উপর হামলা চালাচ্ছে গেরুয়া শিবির।

মালদা তৃণমূল জেলা সভানেত্রী মৌসম বলেছেন, “এগুলো পুরোপুরি ভিত্তিহীন অভিযোগ। তারা নিজেদের গোষ্ঠি কোন্দলের জন্য এই ঘটনা ঘটেছে। এবং তারা নিজেদের সমস্যা লুকানোর জন্য তৃণমূলকে টার্গেট করছে। আমরা যেটা দেখতে পাচ্ছি বিজেপি নেতৃত্ব বৃন্দের মধ্যে গোষ্ঠি কোন্দল সৃষ্টি হয়েছে। ভবিষ্যতেও এধরনের ঘটনা মানুষ দেখতে পাবে। পুলিশ প্রশাসন তার কাজ করছে। আশা করি দোষী তার সাজা পাবে।”