ইটাহার গ্রামীণ হাসপাতালে ভ্যাকসিনেশন ক্যাম্পে শিকেই উঠেছে শারীরিক দূরত্ব বিধি

সংবাদ সারাদিন, ইটাহার: সামনের সারির করোনা যোদ্ধা সহ অন্যান্যদের প্রথম ডোজের করোনা ভ্যাকসিনেশন প্রক্রিয়া শুরু হল ইটাহারে। কিন্তু করোনা আবহে সরকারি দফতরের ভ্যাকসিনেশন ক্যাম্পেই শিকেই উঠেছে শারীরিক দূরত্ব বিধি। কাউকেই মানতে দেখা গেল না সরকারি স্বাস্থ্যবিধি। এমনি চরম অসচেতনতার চিত্রই বুধবার দেখা গেল ইটাহার গ্রামীণ হাসপাতাল চত্বরের ভ্যাকসিনেশন ক্যাম্পে।

এদিন উত্তর দিনাজপুর জেলা স্বাস্থ্য দফতরের নির্দেশে জেলার অন্যান্য ব্লকের পাশাপাশি ইটাহার ব্লকের ইটাহার গ্রামীণ হাসপাতালের ভ্যাকসিনেশন ক্যাম্পে ১৮ থেকে ৪৪ বছর পর্যন্ত ও ইটাহার ব্লকের সমস্ত গণপরিবহণ, টোটো ও অটো চালক থেকে শুরু করে ব্যবসায়ী সমতির সদস্যদের করোনার প্রথম ডোজের কোভিশিল্ড ভ্যাক্সিন দেওয়ার কাজ শুরু হয়। কিন্তু এই প্রক্রিয়া শুরু হতেই ভ্যাকসিন প্রাপকদের ভিড় জমে যায় ভ্যাকসিনেশন ক্যাম্পের বাইরে।

পরে সেখানে উপস্থিত ইটাহার ব্লক শ্রমিক সংগঠনের সভাপতি মেহেবুব আলম ও সদস্য রঞ্জন ঘোষ সহ হাসপাতালের স্বাস্থ্য কর্মীরা ভিড় স্বাভাবিক করে শারীরিক দূরত্ব বজায় রেখে সুষ্ঠ ভাবে সকলকে ভ্যাকসিন নেওয়ার ব্যবস্থা করেন। আজ মোট ২০০ জন ভ্যাকসিন নিতে পারবে এবং আগামী বেশকিছু দিন এই ভাবে ভ্যাকসিনেশন প্রক্রিয়া চলবে ইটাহার গ্রামীণ হাসপাতালের ভ্যাকসিনেশন ক্যাম্পে বলে জানা যায়।

Spread the love