বালুরঘাটে সেফ হোম থেকে পালানোর ২৪ ঘন্টার মধ্যে অভিযুক্তকে গ্রেপ্তার করল পুলিশ

সংবাদ সারাদিন, বালুরঘাট:সেফ হোম থেকে পালানোর ২৪ ঘন্টার মধ্যে অভিযুক্তকে গ্রেপ্তার করল বালুরঘাট থানার পুলিশ। বালুরঘাট হোসেনপুরের সেফ হোম থেকে রাতের অন্ধকারে পালানো করোনা আক্রান্ত বিচারাধীন বন্দীকে ফের গ্রেপ্তার করল বালুরঘাট থানার পুলিশ।

বৃহস্পতিবার সকালে গোপন সূত্রে খবর পেয়ে বালুরঘাট শহরের ডিএভি স্কুল মোড় এলাকা থেকে ওই বিচারাধীন বন্দী রবি প্রামাণিককে নিষিদ্ধ কাফ সিরাফ সহ গ্রেপ্তার করে। পাশাপাশি একই সঙ্গে থাকা গোপাল মহন্ত নামে আরও একজনকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

ধৃতদের কাছ থেকে ৪৫ বোতল নিষিদ্ধ কাফ সিরাফ উদ্ধার করে পুলিশ। এদিকে রবি প্রামাণিকের করোনা রিপোর্ট আজ নেগেটিভ আসে। এরপরই ধৃত রবি প্রামানিককে আজ বালুরঘাট জেলা আদালতে তোলে পুলিশ। পাশাপাশি পুরো ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।

প্রসঙ্গত, গত পড়শু রাতে সুযোগ বুঝে হোসেনপুর এলাকায় অবস্থিত সেফ হোমের পিছন দিয়ে পালিয়ে যায় এটিএম ভাঙার ঘটনায় অভিযুক্ত বিচারাধীন বন্দী রবি প্রামানিক। পুলিশ হেফাজতে থাকা কালীন পালিয়ে যাওয়ায় চাঞ্চল্য ছড়ায়। এরপরই তল্লাশি শুরু করে পুলিশ।

এরপরই আজ ওই অভিযুক্তকে গ্রেপ্তার করে। ওই দু’জন মিলে ফেন্সিডিল পাচারের জন্য যাচ্ছিল। বালুরঘাট থানার পুলিস গোপন সূত্রে খবর পেয়ে গতকাল রাত দশটা থেকে ওই আসামীর পেছনে ছুটতে থাকে।

এরপরে বালুরঘাট থানার আইসি অরিন্দম মুখ্যোপাধ্যায়, সহ বিশাল পুলিসবাহিনী গিয়ে ভোর নাদাগ বালুরঘাটের ডিএভি স্কুল মোড় থেকে প্রায় ৫০ বোতল ফেন্সিডিল সহ তাকে গ্রেপ্তার করে। পুলিস ওই আসামী দুইজনকে করোনার প্রটোকল মেনেই থানায় রাখেন।

এদিন এন্টিজেন পরীক্ষা করলে সে নেগেটিভ হয়। এদিকে আসামী রবি প্রামাণিকের বিরুদ্ধে এটিএম ভাঙার এবং ডাকাতির ঘটনার মামলা ছিল। এবার ফের ফেন্সিডিল মামলা যুক্ত হয়েছে।

এবিষয়ে বালুরঘাট সদর ডিএসপি হেডকোয়ার্টার সোমনাথ ঝাঁ বলেন, ওই অভিযুক্তের পালিয়ে যাওয়ার ২৪ ঘন্টার মধ্যেই পুলিস গ্রেপ্তার করেছে। সেই সঙ্গে আরও একজনকে ফেন্সিডিল সহ গ্রেপ্তারে এদিন তাদের কোর্টে পাঠানো হয়েছে। পালিয়ে যাওয়ার ওই আসামীর বিরুদ্ধে আরও একটি মামলা যুক্ত হয়েছে। পুরো ঘটনাটি খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

Spread the love