শ্বশুরবাড়িতে ফ্যান ঠিক করতে গিয়ে তপনে বিদ্যুৎস্পৃষ্টে হয়ে মৃত্যু জামাইয়ের

সংবাদ সারাদিন, তপন: শ্বশুরবাড়িতে ফ্যান ঠিক করতে গিয়ে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে মৃত্যু হল জামাইয়ের। চাঞ্চল্যকর ঘটনাটি ঘটেছে দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার তপন থানার হরসুরা এলাকায়। মৃত যুবকের নাম রোহিত মুর্মু(২৩)। বাড়ি মালদা জেলার হব্বিপুর থানার বজরুখানপুর এলাকায়। গতকাল রাতে দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার তপন থানার হরসুরা এলাকায় শ্বশুরবাড়িতে ফ্যান ঠিক করার সময় বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে মারা যান রোহিত মুর্মু।

এদিকে বিষয়টি জানাজানি হতেই এলাকায় চাঞ্চল্য ছড়ায়। মঙ্গলবার দেহটি ময়নাতদন্তের জন্য পুলিশ বালুরঘাট জেলা হাসপাতালের পুলিশ মর্গে পাঠায়। এদিকে এই ঘটনায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে পরিবারে। পুরো ঘটনা খতিয়ে দেখছে পুলিশ।

জানা গেছে, গত ১৯ জুলাই অর্থাৎ সোমবার সস্ত্রীক শ্বশুর বাড়ি আসে রোহিত৷ এদিকে গত কয়েকদিন ধরেই দক্ষিণ দিনাজপুর জেলায় তাপপ্রবাহ চলছে। এর ফলে হিমাঙ্কের পারদ ঊর্ধ্বমুখী। গরমে ফ্যান ছাড়া কষ্টকর। এরই মধ্যে শ্বশুর বাড়ির ফ্যান নষ্ট হয়ে যায়। ফ্যান ঘুরছিল না। গরমে থাকা মুশকিল তাই রাতের বেলা নিজেই ফ্যান ঠিক করতে লাগে রোহিত।

সেই সময় বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয় সে। বিষয়টি নজরে আসতে সঙ্গে সঙ্গে তাকে বালুরঘাট সুপারস্পেশালিটি হাসপাতাল নিয়ে আসা হয়। এদিকে হাসপাতালে নিয়ে আসার পর কর্তব্যরত চিকিৎসকরা তাকে মৃত বলে ঘোষণা করেন। এরপর মঙ্গলবার দেহটি ময়নাতদন্তের জন্য বালুরঘাট জেলা হাসপাতালে পাঠিয়ে ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।

এবিষয়ে মৃতের ভাই জাহের মুর্মু জানান, তার দাদা গত কয়েক দিন আগে স্ত্রীকে নিয়ে শ্বশুর বাড়ি আসেন। সেখানে গতকাল রাতে ফ্যান ঠিক করতে গেলে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়। বালুরঘাট হাসপাতালে নিয়ে আসা হলে চিকিৎসকরা মৃত বলে ঘোষণা করে। এই খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে আসেন তারা।

অন্যদিকে পুরো ঘটনা খতিয়ে দেখার আশ্বাস দিয়েছেন তপন থানার পুলিশ।

Spread the love