মালদায় পণের দাবিতে গৃহবধূকে মারধর করে গলায় ফাঁস লাগিয়ে ঝুলিয়ে দেওয়ার অভিযোগ শ্বশুর বাড়ির লোকের বিরুদ্ধে

সংবাদ সারাদিন, মালদা: পণের দাবিতে প্রথমে গৃহবধূকে বাঁশ দিয়ে মারধর। পরে ফাঁসিতে ঝুলিয়ে দেয়ার অভিযোগ স্বামী সহ শ্বশুর বাড়ির লোকের বিরুদ্ধে। ঘটনায় চাঞ্চল্য মালদার ইংরেজবাজার থানার রাম কেল লাহিড়ীপাড়া এলাকায়। মৃত গৃহবধূর নাম মলি মণ্ডল (২৬)। অভিযুক্ত স্বামী বিক্রম মণ্ডল, শ্বশুর গোপাল মণ্ডল ও শাশুড়ি সহ অন্যান্য সদস্যরা।

স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, মালদা জেলা গাজোল থানার কেননা মহাদেবপুরের বাসিন্দা দিলীপ মণ্ডলে মেয়ে মালা মণ্ডলের সাথে বিগত ছয় বছর আগে সামাজিক মতে বিবাহ হয় ইংরেজবাজার থানার রামকেলি লাহিড়ী পাড়ার যুবক বিক্রম মণ্ডলের সাথে। তাদের পরিবারের দুই পুত্র সন্তানও রয়েছে। বিয়ের পর থেকেই পণের দাবিতে ওই গৃহবধূকে শারীরিক ও মানসিক অত্যাচার করে স্বামী ও তার পরিবারের লোকেরা এমনটাই অভিযোগ। বিয়ের পরে পণ হিসাবে ৬০ হাজার টাকা দেওয়া হয়ে ছিল শ্বশুর বাড়ির লোকের হাতে। পুনরায় আবার টাকা দাবি করে গৃহবধূর শ্বশুরবাড়ির লোকেরা। না দিতে পারলে মেয়ের ওপর শারীরিক ও মানসিক অত্যাচার পুনরায় শুরু হয়। গতকালকে মারধর করে গলায় ফাঁস লাগিয়ে ঝুলিয়ে দেয় বলে অভিযোগ মেয়ের পরিবারের। এরপর পুলিশ মৃতদেহটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মালদা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠায়।

অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। পণের দাবিতে মৃত্যু না এর পেছনে অন্য কোনো কারণ রয়েছে তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ। এই ঘটনার পরে মালদা মেডিকেল কান্নায় ভেঙে পড়েছেন মৃত গৃহবধূর মা মেনুকা মণ্ডল সহ পরিবারের অন্যান্য সদস্যরা। শোকের ছায়া নেমে এসেছে মৃত গৃহবধূর পরিবার সহ গোটা গ্রামে।

Spread the love