তৃণমূলের অটো ও টোটো চালকদের মধ্যে বিবাদ, গাজোলে অবরোধ-বিক্ষোভ অটোচালকদের

সংবাদ সারাদিন, মালদা: রাজ্যে ক্ষমতায় এলেও গোষ্ঠী কোন্দল যেন পিছু ছাড়তে চাইছে না তৃণমূলকে। সাতসকালেই তৃণমূলের দুই গোষ্ঠীর বিবাদ যেন প্রকাশ্যে। তৃণমূলের অটো ও টোটো চালকদের মধ্যে বিবাদের জেরে জাতীয় সড়ক অবরোধ যেন আবার সামনে এনে দিল তৃণমূলের গোষ্ঠী কোন্দল। ঘটনায় তৃণমূল কংগ্রেসের ট্রেড ইউনিয়নের ব্লক সভাপতিকে ঘিরে বিক্ষোভ অটোচালকদের। পারমিট ছাড়াই বিনা অনুমতিতে জাতীয় সড়ক থেকে যাত্রী তোলার অভিযোগ টোটো চালকদের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করতে গেলে অটোচালকদের মারধর করা হয় বলে অভিযোগ। ঘটনা গড়াই জাতীয় সড়ক অবরোধে। তবে তৎপর রয়েছে ব্লক তৃণমূল ট্রেড ইউনিয়নের শীর্ষ নেতৃত্ব।

ব্লক তৃণমূল কংগ্রেসের শ্রমিক সংগঠনের সভাপতির সাফ কথা সমস্যা হতেই পারে সেটা বসে মীমাংসা করতে হবে। আমরা তৃণমূল কংগ্রেস জাতীয় সড়ক অবরোধের পক্ষপাতিত্ব নয় তাই দলের বিরুদ্ধে গেলে দল কাউকে রেয়াদ করবে না। তৃণমূলের ট্রেড ইউনিয়নের ব্লক সভাপতির হুঁশিয়ারি এবং প্রশাসনিক আশ্বাস দুই এর জেরে পিছু হটতে হয় অবরোধকারীদের। ঘটনা গাজোল ব্লকের মশাল দিঘি এলাকায় ৩৪ নং জাতীয় সড়কে।

জানা যায়, এদিন ৩৪ নং জাতীয় সড়ক ধরে কদুবাড়ি এলাকা থেকে ময়না এলাকায় যাচ্ছিল একটি অটো। মশাল দিঘি এলাকায় একটি টোটো রাস্তার ধারে দাঁড়িয়ে থাকা যাত্রীদের তুলে নেয়। অটোচালকটি তার প্রতিবাদ করতে গেলে ওই অটোচালককে ধরে মারধর করে টোটো চালকরা এমনটাই অভিযোগ উঠছে। ঘটনার প্রতিবাদে জাতীয় সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করে অটো চালকরা। অবশেষে তৃণমূল কংগ্রেসের ট্রেড ইউনিয়নের ব্লক সভাপতির হুঁশিয়ারি ও প্রশাসনিক আশ্বাসে অবরোধ উঠে। এরপরই তৃণমূল ট্রেড ইউনিয়নের ব্লক সভাপতিকে ঘিরে বিক্ষোভ দেখাতে থাকে অটোচালকেরা।

অটোচালকদের দাবি অনৈতিকভাবে জাতীয় সড়কের যাত্রী ওঠাচ্ছে টোটো চালকেরা। প্রতিবাদ জানালে মারধর করছে। যদিও অভিযোগ অস্বীকার করেছে টোটো চালকেরা। তৃণমূল কংগ্রেস ট্রেড ইউনিয়নের ব্লক সভাপতির দাবি সমস্যা হলে বসে সমাধান করতে হবে। কোন অবরোধ বিক্ষোভ করা যাবে না।

Spread the love